Showing the single result

Show sidebar

TEPABORO RED RICE ‘টেপাবোরো লাল চাল’: 1 KG

৳ 105
স্থানীয় জাতের বোরো ধানের চাল।  ভাত বা খিচুড়ির স্বাদে থাকবে সেই আদি ঘ্রাণ। এটি দেখতে ডিম্বাকৃতির ও মোটা. একটু ভাঙ্গা ভাঙ্গা থাকে। রান্না করার পর চাল টি লম্বা আকৃতির হয়। এই চালটি পদ্মা ও মেঘনা নদীর তীরে বেড়ে উঠে । চাল ব্রাউন হয় ব্রান লেয়ার (ও জার্ম) থাকার কারণে। এগুলো অপসারণ করলে চাল সাদা হয়। অন্যদিকে চাল লাল বা কালো হয় এন্থোসায়ানিন এর উপস্থিতির কারণে। এন্থোসায়ানিন হচ্ছে এন্টিঅক্সিডেন্ট, ন্যাচারালি উজ্জল রঙের, যার উপস্থিতি পাওয়া যায় বেগুনের চামড়ায়, কালো আঙ্গুরে, লাল মিষ্টি আলুতে, লাল পাতা-কফি ইত্যাদিতে। সাদা চাল দেখতে সুন্দর, চকচকে, ভাত খেতে মজা, আর চাল টিকেও বেশিদিন যার কারণ প্রথমত, ফ্যাট অংশ না থাকার কারণে চাল বিস্বাদ হয়না। দ্বিতীয়ত, পুষ্টিকর অংশগুলো অপসারণের ফলে, জীবাণু দ্বারা কম সংক্রমিত হয়। জীবাণুরা আমাদের চেয়ে ঢের ভাল বুঝে, যেখানে পুষ্টি নেই, সেখানে তাদের ইন্টারেস্ট কম। . চালকে সাদা ও স্লিম করার কারণে আমরা গুরুত্বপূর্ণ প্রোটিন, ফ্যাট, ভিটামিনস, মিনারেলস ও আঁশ হারাচ্ছি। আঁশের পরিমাণ কম থাকার কারণে পরিপাকে খুব তাড়াতাড়ি শর্করা ভেঙ্গে উৎপন্ন চিনি রক্তে চলে যায়। তাই সাদা চালের গ্লাইসেমিক ইনডেক্স (Glycemin index) অনেক উপরে। গবেষণা বলে, সাদা চাল গ্রহণ টাইপ ২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়। অন্যদিকে ব্রাউন চাল দৈনিক আঁশের চাহিদার প্রায় এক সপ্তমাংশ পূরণ করতে সক্ষম। শরীরের জন্যে প্রয়োজনীয় সেলেনিয়াম এঁর প্রায় এক চতুর্থাংশের যোগান হতে পারে ব্রাউন চাল থেকে। তাই ব্রাউন চাল শক্তিশালী এন্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে, হার্টের সমস্যা, ক্যান্সার, গলগণ্ড রোগ, এজমার প্রকোপ কমাতে সাহায্য করে, সর্বপরী শরীরের ইমিউন সিস্টেম কে শক্তিশালী করে। এছাড়াও দৈনিক ম্যাংগানিজের চাহিদার প্রায় ৮৮ শতাংশ পূরণ করতে পারে ব্রাউন চাল। উল্লেখ্য প্রোটিন সহকারে ব্রাউন চাল খেলে শরীর সহজেই জিংক গ্রহণ করতে পারে। এবার আপনিই সিদ্ধান্ত নিন, পেট মোটা ব্রাউন চাল খেয়ে স্লিম হবেন, নাকি মিনিকিট চাল খেয়ে নিজের পেট বাড়াবেন?